You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

মেয়রের আদেশ মেনে কর্পোরেশনের ৭০ ও ৭২ নং ওয়ার্ডে বিদ্যুতের পোস্ট থেকে কেটে দেওয়া হল সব বাড়তি তার, বন্ধ ইন্টারনেট, কেবেল

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ২৩শে ডিসেম্বর ২০১৯ : কলকাতা কর্পোরেশনের মেয়র ও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরাদ হাকিম (ববি) সাম্প্রতিক নির্দেশনামা জারি করেন যে কলকাতা কর্পোরেশনের কোন ওয়ার্ডে বিদ্যুতের পোস্টে বিদ্যুতের তার ছাড়া অন্য কোন তার রাখা যাবে না। সত্যি কথা একটা বিদ্যুতের পোস্টে এত তার জড়িয়ে থাকে যে বোঝা দায় কোনটা বিদ্যুতের তার। একদিকে টেলিফোনের তার, আবার ইন্টারনেটের তার আর এরসাথে কেবেলের তার। এত তার থাকার ফলে লাইট পোস্ট তারের ভারে হেলে থাকে।এর ফলে অকারণে প্রাণ হারাতে হয় নিরপরাধী পথযাত্রীদের।এই নির্দেশ পাওয়ার সাথে সাথে কলকাতা কর্পোরেশনের ৭০ ও ৭২ নং ওয়ার্ডে তৎপরতার সাথে কাজ শুরু করে কর্পোরেশনের কর্মীরা। এই দুই ওয়ার্ডের পৌরপিতা অসীম বসু ও সন্দীপ বক্সি নিজে দায়িত্ব নিয়ে সব লাইট পোস্ট থেকে বিদ্যুতের তার ছাড়া বাকি সব তার কেটে ফেলার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।

কিন্তু সব থেকে বড় কথা এই দুই ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের কেবল টিভির তার কেটে ফেলাতে কোন প্রতিবাদ করেন নি এলাকার মানুষ উপরন্তু স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেরা উদ্যোগী হয়ে এই অতিরিক্ত তার কেটে ফেলার পক্ষে ছিল। তাঁরা জানায় হয়তো আমাদের টিভি দেখার ক্ষেত্রে বেশ অসুবিধা হবে কিন্তু অযথা দুর্ঘটনা থেকে তো মুক্তি পাবো। ব্যবসা করছে কিন্তু তার জন্য যে পরিকাঠামো প্রয়োজন সেগুলো কেউ করতে রাজি নয়। কেন তা হবে? গ্রাহকদের থেকে যেমন কেবেল ব্যবসায়ীরা মাসিক টাকা নেয় তেমনিই ইন্টারনেটের জন্য নেয় তবে তাঁরা কেন নিজেদের পোস্ট বসাবে না, কেন সরকারের পোস্ট দিয়ে নিজেদের তার নিয়ে যাবে।স্থানীয় মানুষ রাস্তায় নেমে মেয়রের এই প্রস্তাবকে সমর্থন করাতে দুই পৌরপিতা বাসিন্দাদের উপর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন মানুষ যদি সরকারের কাজের পাশে থাকে তবে কোন কাজ আটকায় না। মানুষ যদি একটু সচেতন হয় তবে সরকারের বা আমাদেরও কাজ করতে অনেক সুবিধা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *