You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

এন আর সি ও সি এ এ-র প্রতিবাদে বিধায়ক ফিরদৌসী বেগমের উদ্যোগে এক বিশাল মৌন মিছিল

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০২০ : মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির নির্দেশে সারা বাংলায় এন আর সি-র বিরুদ্ধে জনমত তৈরি হচ্ছে। মমতা ব্যানার্জি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যাদের ভোটার কার্ড বা আঁধার কার্ড আছে তাদের জন্য অন্য কোন পরিচয় পত্রের দাখিল করার প্রয়োজন নেই।ভারতের নাগরিকের প্রধান ও প্রথম পরিচয় পত্র তিনি ভোটার কিনা? যদি কেউ বৈধ ভোটার হয়, মানে তাঁর ভোটার পরিচয় পত্র থাকে তবে তিনি ভারতের বৈধ নাগরিক। এরপর তাঁর জন্য অন্য কোন প্রমাণ পত্রের প্রয়োজন নেই। সাম্প্রতিক এন আর সি ও সি এ এ-র প্রতিবাদে সোনারপুর উত্তরের বিধায়ক ফিরদৌসী বেগমের উদ্যোগে এবং সোনারপুর উত্তরের মূল সংগঠক নজরুল আলি মন্ডলের নেতৃত্বে এক বিশাল মৌন মিছিল মহামায়াতলা থেকে শীতলা মন্দির হয়ে গড়িয়া স্টেশন রোড হয়ে শ্রীনগর মেন রোডে শেষ হয়।

মিছিলে অংশগ্রহণ করেন রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ১৭টা ওয়ার্ডের কমবেশি সব পৌর প্রতিনিধিরা, ৫টি পঞ্চায়েতের প্রধান, সদস্যরা ও সোনারপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ও সদস্যরা সহ গোটা সোনারপুর উত্তরের তৃণমূলের বিভিন্ন শাখা সংগঠনের কর্মী সহ নেতৃত্বরা।মিছিলে কোন স্লোগান না থাকলেও প্ল্যাকারের স্লোগান মানুষকে বুঝিয়ে দিয়েছিল যে এই রাজ্যে এন আর সি ও সি এ এ কোনভাবেই হতে দেবে না তৃণমূল সরকার। বাধ্য হয়ে কেন্দ্র সরকারকে পিছিয়ে যেতে হবেই।

সামনেই পৌর ভোট তাই তার আগে এধরনের কর্মসূচী দলকে অনেকটা চাঙ্গা করবে বলে মনে করছে অনেকে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন ওয়ার্ডের বিদায়ী পুর প্রতিনিধিরা তাদের মত করে বুথ স্তরে সভা করতে শুরু করে দিয়েছে। এক কথায় পুর নির্বাচনের প্রস্তুতি একপ্রকার শুরু হয়ে গেছে বলা যেতে পারে। কলকাতা কর্পোরেশনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পরেই রাজ্যের বিভিন্ন পুরসভার সব দলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশিত হবে বলে খবর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *