You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

বারুইপুরে আমফানে দুর্গতদের দেখতে যাওয়ার পথে সোনারপুরে তৃণমূলের বিক্ষোভের মুখে সাংসদ দিলীপ ঘোষ

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ২৪শে মে ২০২০ : সদ্য হয়ে যাওয়া ঘর্নিঝড় আমফানের ক্ষতিগ্রস্থদের দেখতে যাওয়ার পথে মাঝ রাস্তায় তৃণমূলের বিক্ষোভের মুখে সাংসদ ও রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দিলীপ ঘোষ বারুইপুরে আমফান দুর্গতদের দেখতে যাওয়ার পথে সোনারপুরের বাইপাসের রাস্তায় ঢালাই ব্রীজের কাছে তৃণমূলের বিক্ষোভের মুখে পড়তেই কিছুক্ষন চেষ্টা করার পর নিজেই সিদ্ধান্ত নেন ফিরে যাওয়ার। তবে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে নি। দিলীপ ঘোষের গাড়ি দেখেই একদল তৃণমূল কর্মী ও নেতারা রাস্তা অবরোধ করে এবং স্লোগান তোলেন “গো ব্যাক দিলীপ ঘোষ”। এই অবস্থায় ওখানে কর্মরত পুলিশ আধিকারিকেরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন। দিলীপ ঘোষকে নিরাপদ দুরত্বে রেখে দেওয়া হয়। বেশ কিছু বিজেপি কর্মীরা উপস্থিত হতে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পুলিশ আধিকারিকেরা দিলীপ ঘোষকে অনুরোধ করেন নিরাপত্তার কারণে তিনি যেন ফিরে যান।

ঘটনাস্থলে দিলীপ ঘোষ বলেন, সাম্প্রতিক প্রধানমন্ত্রীর সাথে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আকাশ পথে আমফান পরিস্থিতি দেখতে যান। আমফানে রাজ্যের যে ক্ষতি হয়েছে তা দেখে প্রধানমন্ত্রী বড় অঙ্কের টাকার অনুদানের ঘোষণা করেন। আসলে রাজ্য সরকার ক্ষতির জন্য কোনরকম ব্যবস্থা নেন নি। আমরা গেলে তা প্রকাশ্যে এসে যাবে বলেই এভাবে বাধা দেওয়া হচ্ছে। করোনা থেকে আমফান সবেতেই রাজ্যে বেহাল অবস্থা। রাজ্য সরকার একেবারেই ব্যর্থ। আমি বারুইপুরে গিয়ে সেখানকার মানুষদের সাহায্য করবো এটা রাজ্য সরকার মেনে নিতে পারছে না। আসলে তাঁরা নিজেরাও ময়দানে নেই, বিরোধীদেরও থাকতে দেবে না।

উপস্থিত তৃণমূল নেতৃত্বদের বক্তব্য দিলীপ ঘোষ আমফানের পরিস্থিতির অজুহাতে বারুইপুরে গিয়ে দুর্গতদের নিয়ে রাজনীতি করবে তা আমরা হতে দেব না। আমাদের রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী করোনা থেকে আমফান সবেতেই রাস্তায় নেমে মোকাবিলা করছেন। আমফান আসার অনেক আগে থেকে মুখ্যমন্ত্রী নিজে কন্ট্রোল রুমে বসে নজর রেখেছেন রাজ্যের ক্ষয়ক্ষতির উপর। তৃণমূল মানুষের জন্য মাঠে নেমে মোকাবিলা করতে প্রস্তুত কিন্তু কেউ সেই সুযোগ নিয়ে রাজনীতি করবে তা হতে দেবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *