You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

খেয়াদহ থেকে নতুন দিয়াড়া পর্যন্ত নেতৃত্বদের নিয়ে “বঙ্গধ্বনি” প্রচার করলেন বিধায়ক ফিরদৌসী সাথে বোঝালেন দল এক ও অদ্বিতীয়, মমতা ব্যানার্জি শেষ কথা

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ১৩ই ডিসেম্বর ২০২০ : রাজ্য সরকারের ১০ বছর পূর্তী নিয়ে দলনেত্রী মমতা ব্যানার্জি-র নির্দেশে রাজ্যের সর্বত্র শুরু হয়েছে “বঙ্গধ্বনি” কর্মসূচী। এই কর্মসূচিতে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে রাজ্যের উন্নয়নের রিপোর্ট কার্ড।

সেই কর্মসূচী অনুযায়ী আজ খেয়াদহ থেকে নতুন দিয়াড়া পর্যন্ত পায়ে হেঁটে মানুষকে তুলে দেওয়া হল রাজ্যের রিপোর্ট কার্ড। এভাবেই গোটা সোনারপুর উত্তর বিধানসভায় কোনায় কোনায় পৌঁছে দেওয়া হবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির এই রিপোর্ট কার্ড। আজ তারদাহ, হরপুর, খেয়াদহ পঞ্চাননতলা, খেয়াদহ বাজার, সবুজপল্লী, উচ্ছেপোঁতা, জগন্নাথ মন্দির, সমাজপতি গার্ডেন হয়ে এই প্রচার পদযাত্রা শেষ হয় নতুন দিয়াড়া শীতলা মন্দিরে। এই পদযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন সোনারপুর উত্তর বিধানসভার বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম, সোনারপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ও বিধানসভার অন্যতম পর্যবেক্ষক প্রবীর সরকার, সোনারপুর উত্তর বিধানসভার তৃনমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি পাপাই দত্ত সহ অনেকে। নতুন দিয়াড়ায় এই পদযাত্রায় যোগ দেন রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের বিদায়ী পৌরমাতা অশোকা মৃধা ও ওয়ার্ডের অসংখ্য মানুষ।

নতুন দিয়াড়া শীতলা মন্দিরে বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম পাশে অশোকা মৃধাকে পাশে নিয়ে প্রচার সভায় বক্তব্য রাখেন, উপস্থিত ছিলেন প্রবীর সরকার, পাপাই দত্ত, জগদীশ নস্কর, দেবাশিস চৌধুরী, নির্মল বাগুলি, অমর নস্কর, মাম্পি, সঞ্জীব, যুধিষ্ঠির, মনোজ, অখিল, জয়, স্বপন, নারায়ণ সহ অনেকে। গতকালকের ঘটনাকে কোন আমোলই দিলেন না বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম বরং অশোকার পাশে থেকে বুঝিয়ে দিলেন তাঁকে ওয়ার্ডের যোগ্য নেতৃত্ব হিসাবে ভরসা করেন।তবে গতকাল ঘটনায় যুক্ত থাকা কাউকেই আজ আর দেখা যায় নি এই পদযাত্রায়। সভা শেষে অশোকা মৃধার বাড়িতেই মধ্যাহ্নভোজ সারেন বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *