Warning: mysqli_real_connect(): Headers and client library minor version mismatch. Headers:101106 Library:100236 in /home/u190665168/domains/takmaaa.com/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 1653
২০১৮ সালের রাস্তার কাজের টাকা বিধায়কের উদ্যোগে পেল রাজপুর সোনারপুরের ৫ নং ওয়ার্ড, আম্রুত প্রকল্পের রিজারভার উদ্বোধনে ফিরদৌসী – takmaaa.com
You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

২০১৮ সালের রাস্তার কাজের টাকা বিধায়কের উদ্যোগে পেল রাজপুর সোনারপুরের ৫ নং ওয়ার্ড, আম্রুত প্রকল্পের রিজারভার উদ্বোধনে ফিরদৌসী

অম্বর ভট্টাচার্য, তকমা, সোনারপুর, ২রা জুলাই ২০২১ : সাম্প্রতিক রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডে আম্রুত প্রকল্পের অধীনে পানীয় জলের ওভারহেড রিজারভারের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সোনারপুর উত্তর বিধানসভার বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম, রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার জল দপ্তরের বিদায়ী সি আই সি ও বর্তমানে প্রশাসকমন্ডলীর সদস্য নজরুল আলি মন্ডল, যেই ওয়ার্ডে এই প্রকল্পের সূচনা হল সেই ওয়ার্ডের বিদায়ী পৌরপিতা তথা ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটার তরুণ কান্তি মন্ডল, পৌরসভার বাস্তুকার শুভাশিস বসু, কে এম ডি এ-র আধিকারিক, সোনারপুর উত্তর বিধানসভার তৃনমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি পাপাই দত্ত সহ এলাকার বিশিষ্টজনেরা। অনুষ্ঠানে বিধায়ক নারকেল ফাটিয়ে এই জলের ওভারহেড রিজারভারের কাজের সূচনা করেন।এই রিজারভার তৈরি হতে প্রায় এক বছর সময় লাগবে বলে তিনি জানান।

অনুষ্ঠানে এসে নজরুল আলি মন্ডল বলেন, আমরা মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বে ও আদর্শে কাজ করি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন, মানুষের পাশে থাকতে হবে এবং মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। আমরা নির্বাচনকে সামনে রেখে কোন কাজ করি না, সারা বছর উন্নয়নের কাজ করি। তাই গত নির্বাচনে আমাদের একটাই স্লোগান ছিল প্রতিটা বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দেওয়া হবে। রাজ্য সরকারের সহযোগিতায় সেই কাজ শুরু হয়েছিল কিন্তু মাঝে করোনা পরিস্থিতি কাজের গতি কমিয়ে দেয় এবং আমরা পিছিয়ে যাই। গত বিধানসভা নির্বাচনের সময় সোনারপুর উত্তরের বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম ও সোনারপুর দক্ষিনের তৎকালীন বিধায়ক জীবন মুখার্জি সহ আমরা মুখ্যমন্ত্রী ও তৎকালীন নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরাদ হাকিমের কাছে অনুরোধ করেছিলাম এই পৌরসভার পানীয় জলের সমস্যার দিকে একটু নজর দিতে। আমাদের অনুরোধকে মান্যতা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছিলেন রাজপুর সোনারপুর কি পেল তা আমার দেখার দরকার নেই কিন্তু যাতে পানীয় জল পায় সেটা দেখতে।

এরপরই আমরা ৭৫১ কোটি টাকার একটা প্রকল্পের অনুমোদন পাই। সেই টাকায় ইতিমধ্যে আমাদের পৌরসভার ১১টি ওভারহেড রিজারভারের এবং ৩টি ভুগর্ভস্থ রিজারভারের কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে।এছাড়া ৩১ নং ওয়ার্ডের লেক গার্ডেন্সে পরিশোধীয় পানীয় জলের প্ল্যান্টের কাজ সমাপ্তের পথে। এখন আমরা ভুতঘাটে পানীয় জলের জেটি তৈরি করছি। এর পাশাপাশি আরও ৮টা ওভারহেড রিজারভার তৈরি হবে। আজ তাই ৫ নং ওয়ার্ডে শিলান্যাস হবে, এরপর সোনারপুর দক্ষিণ বিধানসভার ১১ নং ওয়ার্ডে এবং ১৭ নং ওয়ার্ডে আরও দুটো ওভারহেড রিজারভার তৈরির কাজ সূচনা করা হবে।আজ মোট ৩টি ওভারহেড রিজারভারের কাজ শুরু হবে। এরপর একইভাবে ২ নং ওয়ার্ডেও এরকম ওভারহেড রিজারভার তৈরি হবে। আমাদের লক্ষ্য মানুষের কাছে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম সেই কথা অনুযায়ী ২০২২ সালের শেষের দিকে যাতে সব ওয়ার্ডে পর্যাপ্ত পানীয় পৌঁছে দিতে পারি তা দেখা। এক বছরের বেশি আমাদের কাজ থমকে গেছে শুধুমাত্র করোনার কারণে, নাহলে এতদিনে কাজ শেষ হয়ে যেত।

রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের দীর্ঘদিনের একটা বড় সমস্যা বর্ষার জল নিকাশি। সামান্য বৃষ্টি হলেই গোটা ওয়ার্ড জলমগ্ন হয়ে পড়ে। এই সমস্যাকে দ্রুত সমাধান করতে ৪৮৭ কোটি টাকার একটা প্রকল্প ইতিমধ্যেই জমা দেওয়া হয়েছে। তারা সেই প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে। এই প্রকল্পের কাজ শুরু হলে গোটা গড়িয়ার যে নিকাশি সমস্যা আছে তা সমাধান হয়ে যাবে। একই সাথে তোমাদের মাধ্যমে ওয়ার্ডের জনসাধারণের জন্য একটা সুখবর দিয়ে এটাও জানিয়ে রাখছি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই ওয়ার্ডের তিনটে বড় রাস্তার কাজ শুরু হবে। এটাও এই ওয়ার্ডের দীর্ঘদিনের একটা সমস্যা ছিল। এই কাজের আনুমানিক টেন্ডার মূল্য ১ কোটি ২০ লাখ টাকা। দাদপুর কার্লভার্ট থেকে বিবেকানন্দ নগর পর্যন্ত একটা রাস্তা, সরদার পাড়ার একটা রাস্তা আছে, নবগ্রামে গৌতমের দোকান থেকে আগুয়ান সংঘ ক্লাবের মোড় পর্যন্ত মোট তিনটে রাস্তার কাজ খুব দ্রুত শুরু হবে। মোটের উপর আমরা মানুষকে যা কথা দিয়েছি তা করে দেওয়ার চেষ্টা করেছি। যদি এই করোনা পরিস্থিতি না থাকতো তাহলে আমরা অনেক আগেই এই উন্নয়নের কাজ করে ফেলতে পারতাম, এটা আমাদের দুর্ভাগ্য যে করোনা ও লকডাউনের কারণে প্রায় ২ বছর কাজ আটকে থাকলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *