You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

গড়িয়া থেকে বারুইপুর পর্যন্ত সাদার্ণ বাইপাসের ২৮ কিমি রাস্তা সংস্কারের শিলান্যাস করলেন মন্ত্রী ফিরাদ হাকিম

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ১৫ই জুন ২০২০ : ইস্টার্ণ বাইপাস একসময় কামালগাজী পর্যন্ত ছিল কিন্তু বারুইপুর শহরের সাথে কলকাতার দুরত্ব কমানোর জন্য কামালগাজীর উপর দিয়ে ফ্লাই অভারের মাধ্যমে সম্প্রচারিত করা হয় সাদার্ন বাইপাস যা যুক্ত হয়েছে বারুইপুর পর্যন্ত। প্রথম অবস্থায় রাস্তা তৈরি হয়েছিল ঠিকই কিন্তু তা ছিল একদিকে। মানে একদিকের রাস্তা দিয়েই বারুইপুর থেকে আসা ও যাওয়া যেত। জমির কিছু জটিলতার জন্য দুদিকের রাস্তা করা সম্ভব হচ্চিল না। কিন্তু সেই জটিলতা মিটিয়ে বর্তমানে বারুইপুর পর্যন্ত দুদিকের রাস্তা তৈরি হয়েছে মাঝে থেকে গেছে একটা খাল মাত্র। কিন্তু বারুইপুর পর্যন্ত রাস্তার অবস্থা খুব একটা ভাল নয় তাই সেই রাস্তাকে পুনরায় সংস্কারের জন্য আজ রাজ্যের নগরোন্নয়ন ও পৌরসভা সংক্রান্ত মন্ত্রী ফিরাদ হাকিম শিলান্যাস করেন। সেই সময় রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী ছিলেন মনীষ গুপ্ত। তিনি এই দীর্ঘ ২৮ কিমি আসা ও যাওয়ার রাস্তায় বিদ্যুতের ব্যবস্থা করেন। আজ এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সোনারপুর উত্তর বিধানসভার বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম, রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার প্রশাসকমন্ডলী সদস্য নজরুল আলি মন্ডল সহ অনেকে।অনুষ্ঠানে বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম জানান, যে সংস্থা এই রাস্তা সংস্কার করবেন তাঁকে আগামী ১০ বছর রাস্তার সব রকমের ক্ষতির মেরামতি দায়িত্ব নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে এসে মন্ত্রী ফিরাদ হাকিম বলেন, এই সাদার্ন বাইপাস আজকে এত ব্যস্ত না হলেও একতা দিন আসবে এই রাস্তাটা বর্তমান ইস্টার্ণ বাই পাসের থেকেও বেশি ব্যস্ত রাস্তা হয়ে উঠবে।একমাত্র এই রাস্তা দক্ষিণ ২৪ পরগণার সাথে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণার দ্রুত যোগাযোগ স্থাপনের রাস্তা হয়ে উঠবে।এই রাস্তার গুরুত্ব বাড়বে তাই এই রাস্তা সংস্কার করা খুবই প্রয়োজন হয়ে উঠেছে।বারুইপুর একটা সদর, দক্ষিণ ২৪ পরগণার সব প্রশাসনিক অফিসগুলো বারুইপুরে নিয়ে আসা হচ্ছে তাই সড়ক যোগাযোগ ভাল হওয়া প্রয়োজন।

এদিন মন্ত্রী ফিরাদ হাকিম ফিতে কেটে ও নারকেল ফাটিয়ে সাদার্ণ বাইপাসের রাস্তার কাজের শুভ উন্মোচন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *