You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

লকডাউনে গড়িয়ায় মানুষের পাশে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে সোনারপুর উত্তর যুব তৃণমূল সভাপতি পাপাই দত্ত

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ২৮শে মার্চ ২০২০ : সারা দেশে করোনা যেভাবে থাবা বসিয়েছে তাতে সারা ভারতে এখন চলছে লকডাউন পরিস্থিতি। এর ফলে মানুষের ভাড়ারে টান পড়েছে। দুঃস্থ মানুষের খাবারের যোগান নেই, হাতে নেই পয়সা। সারা ভারতে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০ ছাড়িয়েছে। মানুষের মধ্যে আতঙ্কের ছাপ এসে গেছে। সামনের এক সপ্তাহে বোঝা যাবে ভারতের কি পরিস্থিতি হবে। করোনার থাবা কতটা মারাত্মক হবে তা বোঝা যাবে আগামী এক সপ্তাহে।

এই পরিস্থিতিতে সোনারপুর উত্তর বিধানসভার তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি পাপাই দত্ত ও গড়িয়া টাউন জয়হিন্দ বাহিনীর সভাপতি তথা রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের তৃণমূল যুব সভাপতি অরিন্দম দত্ত এই দুঃস্থ মানুষের পাশে থাকার উদ্যোগ নেন।তাদের যৌথ উদ্যোগে স্থানীয় ৪০ জন দুঃস্থ পরিবারকে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, দু ধরনের ভোজ্য তেল ও ডিম তুলে দেওয়া হয়। অরিন্দম জানায়, যেখানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি রাজ্যের মানুষের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার কোথা চিন্তা করে নিজের কথা না চিন্তা করে মানুষের স্বার্থে রাস্তায় নামতে পারেন সেখানে আমরা আমাদের সামর্থ অনুযায়ী এই উদ্যোগ নিতেই পারি। এতে দলের ও নেতৃত্বের ভাবমুর্তি উন্নত হবে।

মানুষের পাশে থাকার বার্তাই আমামদের নেত্রী সব সময় বলে আসেন। পাপাই দত্ত বলেন, সারা দেশের মানুষের আইকন এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাঁকে আমরা দলের নেত্রী হিসাবে পেয়ে আমরা সকলে ধন্য।আমার মনে হয় বিগত ১০০ বছরের কোন মানুষ যদি বেঁচে থাকেন তিনিও বলবেন তাঁর জীবনে এরকম একজন নেতৃত্ব দেখেন নি। নিজের জীবনের ঝুঁকি উপেক্ষা করে মানুষের জন্য কাজ করার মানসিকতা একমাত্র মমতা ব্যানার্জি দেখাতে পারেন, তাই তিনি বাংলার গর্ব, তাই তিনি মা-মাটি-মানুষের প্রিয় নেত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী। সত্যি আজ আমাদের গর্ব মমতা ব্যানার্জি। যেভাবে তিনি সারা দেশের মধ্যে করোনা আক্রান্তের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে লকডাউন ঘোষণা করেছিলেন যা অভাবনীয় ও দুরদর্শিতার পরিচয় ছিল।আমাদের একমাত্র অনুপ্রেরণা, একমাত্র আদর্শ যার নাম মমতা ব্যানার্জি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *