You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

“মালিণী”, এক তরুণ উপন্যাসকের যাত্রার দীর্ঘ হারিয়ে যাওয়া অভিমানকে নতুন করে আবিষ্কার করেছে : অর্পন

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ১৮ই জানুয়ারি ২০২০ : অর্পণ বসাকের পরবর্তী ছবি ‘মালিনী’ একটি প্রতিষ্ঠিত তরুণ লেখক সরঞ্জিতকে ঘিরে একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের থ্রিলার। মাত্র ২৭ বছর বয়সে তিনি ইতিমধ্যে চারটি উপন্যাস সম্পন্ন করেছেন যা পাঠকরা ব্যাপকভাবে গ্রহণ করেছেন।

"মালিনী" লেখক সরঞ্জিতের গল্প, যিনি তারুণ্যের প্রথম থেকেই স্টারডম দেখেছিলেন। তিনি নিজেকে একজন "মেথড অভিনেতা" হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন।তাঁর শেষ উপন্যাস "মালিনী", পাঠকদের কাছে এক বিশাল সাফল্য লাভ করেছিল। কিন্তু হঠাৎ তিনি এই গ্ল্যামারাস এবং জনপ্রিয়তার জীবন ছেড়ে চলে গেলেন এবং গোটা বিশ্ব তাঁর কাছ থেকে আর কোনদিনও কিছু শুনেনি। বছরখানেক পরে, এক তরুণ সাংবাদিক, একটা স্টোরির জন্য চেষ্টা করছিলেন, তিনি খুঁজে বেড়াচ্ছিলেন সরঞ্জিতের একটা সাক্ষাৎকার নেওয়ার জন্য যার মধ্যে লুকিয়ে আছে তাঁর সেই স্টোরি। কিন্তু শেষে রহস্যের উদ্ঘাটনে সরঞ্জিতের কী হল? কে ছিলেন মালিনী? "মালিনী" ছবিটা দেখলে তার সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে।

ছবিতে সুপ্রতিম সাহাকে দেখা যাবে সরঞ্জিতের ২৭ বছরের পর্বের ভূমিকায়। সুপ্রতিম মাত্র 19 বছর হলেও মেক-আপ তাকে ২৭ বছরে বেশ মানিয়েছে। 
 ঋতুপর্ণা সেন (রি)-কে শ্রীময়ীর চরিত্রে একজন সাংবাদিকের ভুমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাবে,যার চোখে দর্শকেরা কাহিনীটা দেখতে সক্ষম হব এবং যার মাধ্যম ছাড়া বিশ্ব কোনদিনও জানতে পারতো না সরঞ্জিতের আসলে কী হয়েছিল। তিনি হলেন এক ব্যক্তি, যিনি সমস্ত প্রতিকূলতার সাথে লড়াই করেছেন, সরঞ্জিতকে সন্ধান করেছিলেন এবং তাঁর জীবন সম্পর্কে কথা বলতে তাকে রাজি করেছিলেন। শ্রীময়ী হঠাৎ দর্শকের মতো করে তাঁর জীবনে কী ঘটেছিল তা জানতে আগ্রহী।
সুজয় প্রসাদ চ্যাটার্জী বিশেষত এই প্রকল্পটির দ্বারা বেশ সন্তুষ্ট কারণ এই পুরো প্রকল্পটির ধারণাকে বাস্তবায়ন করা সম্পূর্ণরূপে কার্যকরি করেছে আজকের একদল তরুণ প্রজন্ম। "আমার চরিত্রটা বেশ আকর্ষণীয় এবং সব থেকে যেটা পছন্দের সেটা হল এই পুরো প্রোজেক্টের নেতৃত্ব দিচ্ছেন একজন তরুণ পরিচালক, অভিনেতা এবং লেখকরা।" জানান সুজয়।এছাড়াও ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকায় দেখা যাবে আনন্দ চৌধুরী ও ঐশীকে।

ছবির ভাবনা ও পরিচালনায় রয়েছে অর্পণ বসাক,সিনেমাটোগ্রাফিটিতে অনুভব চ্যাটার্জী। ছবিটা প্রযোজনা করছেন বিশ্বজিৎ কুমার।প্রচারে অল বিগ থিংকার্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *