Warning: mysqli_real_connect(): Headers and client library minor version mismatch. Headers:101106 Library:100236 in /home/u190665168/domains/takmaaa.com/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 1653
রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডে রাস্তার যে সমস্যা ছিল বিধায়ক সমাধান করলেন – takmaaa.com
You cannot copy content of this page. This is the right with takmaa only

রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডে রাস্তার যে সমস্যা ছিল বিধায়ক সমাধান করলেন

অম্বর ভট্টাচার্য, তকমা নিউজ, সোনারপুর, ১লা এপ্রিল ২০২৪ : গড়িয়া স্টেশনে এলাকায় সান্ধ্য বাজার থেকে যুব সংঘ ক্লাব হয়ে নবশ্রী বাজার পুরো রাস্তাটাই খুবই খারাপ অবস্থায় ছিল। এই রাস্তা নিয়ে মানুষের দীর্ঘদিনের অভিযোগ যে এই রাস্তা চলাচলের অযোগ্য। এই বাস্তব কথাটা স্থানীয় বিধায়ক সোনারপুর উত্তরের ফিরদৌসী বেগম এর কাছেও অজানা ছিল না কিন্তু আমরুত প্রকল্পের কাজ চলাকালীন রাস্তার কাজ করা সম্ভব হয়ে উঠছিল না।

রাজপুর সোনারপুর পৌরসভা প্রতিটি বাড়িতে পানীয় জল পৌছানোর যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সেই প্রতিশ্রুতিকে বাস্তবায়িত করার জন্য জোর কদমে কাজ চলছে গোটা সোনারপুর উত্তর বিধানসভায়। আর সেই পানীয় জলের লাইন অর্থাৎ পাইপ এর কাজ না শেষ হওয়া পর্যন্ত রাস্তার কাজ করা যাচ্ছিল না। অবশেষে পানীয় জলের পাইপের কাজ শেষ হওয়ার পরেই বিধায়ক ফেরদৌসী বেগমের নির্দেশে সান্ধ্য বাজার থেকে যুব সংঘ ক্লাব পর্যন্ত রাস্তার কাজ শুরু হতে চলেছে। সান্ধ্য বাজার থেকে যুব সংঘ ক্লাব হয়ে নবশ্রী বাজার পর্যন্ত পুরো রাস্তাটাই রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের অধীনে কিন্তু অনেকে এই রাস্তাটাকে পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের বলেও দাবি করে থাকে যদিও সেটা ভুল। শনি মন্দির থেকে যে রাস্তা সোজা নরেন্দ্রপুর স্টেশনের দিকে চলে গিয়েছে ও গৌতমের দোকান থেকে বিশ্ববাণী হয়ে কালভার্ট পর্যন্ত রাস্তা দুটি ৫ নম্বর ওয়ার্ডের অধীনে।

সাম্প্রতিক রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ার সহ কনট্রাক্টর এই রাস্তা পরিদর্শন করে যান এবং খুব শিগগিরই এই রাস্তার কাজ শুরু হবে বলে জানান। পরিদর্শনের দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি হিমাংশু দে (মিঠু)। তবে এটা ঠিক যে এই রাস্তার কাজ শুরু হলে মানুষ খুবই স্বস্তি পাবে এবং এটা তাদের কাছে পরিষ্কার হবে যে বিধায়ক প্রতিশ্রুতি শুধু দেওয়ার জন্য দেন না কাজ করে দেখানোর জন্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *